গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীতে সৎ বোনকে ধর্ষণের অভিযোগে ভাই গ্রেপ্তার

বরিশালের গৌরনদীতে স্কুল পড়ুয়া বোনকে বেড়ানোর কথা বলে ২৬ দিন জিম্মি করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করেছে এক নরপিশাচ।

এ ঘটনায় গৌরনদী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হলে রবিবার রাতে পুলিশ ধর্ষক মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে।

গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম জানান, গৌরনদী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে (১৩) গত ১৫ সেপ্টেম্বর বেড়ানোর কথা বলে মাগুড়া জেলা শহরে নিয়ে যায় তার বড়ভাই ট্রাক চালক ও দুই সন্তানের জনক মিজানুর রহমান মৃধা (৪০)। সেখানে মিজানের বন্ধু অপর ট্রাক চালক রুম্মনের বাড়িতে রেখে কিশোরীকে জিন্মি করে দিনের পর দিন তাকে ধর্ষণ করে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর ধর্ষিতাকে রুম্মনের বাসায় ফেলে মিজান পালিয়ে আসে। রবিবার রাতে কৌশলে নির্যাতিতা মাগুড়া থেকে পালিয়ে গৌরনদী আসে। নির্যাতিতা বিষয়টি পরিবারের কাছে জানায়।

এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদি হয়ে ওই রাতেই গৌরনদী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে পুলিশ পৌরসভার উত্তর পালরদী থেকে ধর্ষক মিজানকে গ্রেপ্তার করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আলাউদ্দিন জানান, ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য বরিশাল শেরে-ই- বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ধর্ষক মিজানের মা কমলা বেগম তার পিতা শহিদ মৃধাকে তালাক দিয়ে পাশ্ববর্তি বানিয়াসুরী গ্রামের চান মিয়াকে বিবাহ করেন। চান মিয়ার ঘরে ওই কিশোরীর জন্ম হয়।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...