বরিশাল

বিধবাকে ধর্ষণ করতে গিয়ে বখাটের পুরুষাঙ্গ কর্তন

পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলায় ইকড়ি গ্রামের এক গৃহবধুর (৩০) ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে ওই গৃহবধু ধারালো অস্ত্র দিয়ে লম্পটের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাতে এমাদুল হক আকন (৩৫) বিধবা প্রতিবেশির ঘরে ঢুকলে এ ঘটনা ঘটে। এমাদুল হক ইকড়ি গ্রামের মোঃ চান মিয়া আকনের ছেলে। সে দুই সন্তানের জনক।

থানা ও স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, বিধবা গৃহবধুর স্বামী ২০০৭ সালে ঘূর্ণিঝড় সিডরে সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে আজও ফিরে আসেনি।

অসহায়ত্মের সুযোগ নিয়ে প্রতিবেশী এমাদুল হক দীর্ঘদিন ধরে কু-প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল।

তিন সন্তান নিয়ে গৃহবধু অনেক কষ্টে ছেলে মেয়েদের মানুষ করার চেষ্ঠা করে আসছিল।

শনিবার দিবাগত গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে ওই গৃহবধূ বাইরে বের হওয়ার সময় ওত পেতে থাকা বখাটে এমাদুল তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এসময় ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে গৃহবধূ ধারালো দা দিয়ে লম্পট এমাদুলের লিঙ্গ কেটে দেয়। এমাদুলের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে গুরুতর অবস্থায় রোববার সকালে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ভান্ডারিয়া থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানায়, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের হয়নি।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...