গৌরনদী সংবাদ

অবশেষে চলেই গেলেন বরিশালের দগ্ধ গৃহবধূ সাথী

যৌতুকের দাবিতে স্বামীর দেয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে চলেই গেলেন গৃহবধূ সাথী। দীর্ঘ ৮ দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের বেডে দগ্ধ যন্ত্রণায় অবশেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় না ফেরার দেশে চলে যান তিনি।

সাথী বেগম উজিরপুর উপজেলার আনোয়া বারোপাইকা গ্রামের আব্দুল গনির মেয়ে।

মৃত্যুর বিষয়টি তার পরিবারের সদস্যরা নিশ্চিত করেছেন।

ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় সাথীর স্বামী আলামিনকে (৩৫) গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও গৌরনদী থানার এসআই মোশারেফ হোসেন খান।

জানা গেছে, গত ১৮ মে রাতে যৌতুকের দাবিতে বরিশালের গৌরনদী পৌরসভার কাছেমাবাদ এলাকার মান্নান শিকদারের মাদকাসক্ত ছেলে আলামিন শিকদার তার স্ত্রী সাথীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। মুমূর্ষু অবস্থায় সাথীকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ১৯ মে বিকালে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যায় মৃত্যু হয় তার।

ঘটনায় নিহত সাথীর মা ফকরুন বেগম বাদী হয়ে জামাই আলামিন শিকদারকে আসামি করে ২০ মে রাতে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...