লাইফ ও সাইন্স

আপনার সম্পর্কটি কি শুধুই কামনার নাকি ভালোবাসার?

ভালোবাসা বা প্রেমের সম্পর্কে সবচাইতে বড় সমস্যা যা হয় তা হচ্ছে বোঝাই যায় না তা কি আসলেই ভালোবাসা না কামনা। একটি ভালোবাসার সম্পর্ক যখন শুরু হয় তখন একে অপরের প্রতি যে আকর্ষণ তা কি ভালোবাসার আকর্ষণ নাকি কামনার আকর্ষণ তা বুঝে উঠতে পারেন না অনেকেই। পরবর্তীতে এই দ্বিধাবোধ নিয়ে শুরু হয়ে যায় সমস্যা। সম্পর্কটি শুধুই যদি কামনার হয়ে থাকে তাহলে সেই সম্পর্ক থেকে জীবনে সমস্যাই পাওয়া যাবে। এমনকি সত্যিকারের ভালোবাসার প্রতিও বিশ্বাস ও শ্রদ্ধা নষ্ট হয়ে যায় যদি আপনার সম্পর্কটি কামনার হয়ে থাকে।

সুতরাং সম্পর্ক নিয়ে চিন্তা ভাবনা করতে হলে অবশ্যই ভাবতে হবে সম্পর্কটি কি ভালোবাসা থেকে তৈরি নাকি শুধুই কামনা থেকে। ভাবছেন কিভাবে বুঝতে পারবেন? একটু সতর্ক দৃষ্টি দিন নিজের সম্পর্কের ওপর। আপনাআপনিই ধরা পড়ে যাবে আপনার সম্পর্কটি কি ভালোবাসার নাকি কামনার।

আপনাদের সম্পর্কে বাহ্যিক সৌন্দর্যই মুখ্য বিষয়

কখনো কি লক্ষ্য করেছেন তিনি এবং আপনি কি আপনাদের নিজেদের বাহ্যিক সৌন্দর্য বা স্টাইলিশ লুকটা নিয়েই বেশি চিন্তা করেন? তিনি যদি সব সময় আপনাকে আরও বেশি স্টাইলিশ হওয়ার কথা বলতে থাকেন, কিংবা তাকে কেন পছন্দ করেন তার উত্তরে যদি আপনি ভাবেন তিনি অনেক বেশি সুন্দর ও স্টাইলিশ তাহলে এটি কখনোই ভালোবাসার সম্পর্ক হতে পারে না। এটি শুধুই কামনার সম্পর্ক। কারণ ভালোবাসার সম্পর্কে বাহ্যিক সৌন্দর্য মুখ্য বিষয় নয়।

আপনাদের আলাপ আলোচনায় বাস্তবতার ছোঁয়া নেই

যারা চাইবেন নিজেদের সম্পর্কটিকে পরিপূর্ণতা দিতে তাদের কথাবার্তায় ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা থাকবে, একে অপরের প্রতি ভালোবাসা এবং একই সাথে শ্রদ্ধা প্রদর্শন। অবশ্যই বলছি না যে সব সময়েই ভবিষ্যৎ এবং সম্পর্ক নিয়ে সিরিয়াস কথা বলবেন। কিন্তু কিছুটা হলেও বাস্তবতা থাকবে এই সম্পর্কের কথা বার্তায়। যদি দেখেন আপনাদের মধ্যে শুধুই ফ্লার্টি ধরণের কথা হয় এবং বাস্তবধর্মী কোনো কথাই হয় না তাহলে বুঝবেন আপনাদের সম্পর্কে শুধুই কামনার ছোঁয়া রয়েছে।

আপনাদের মধ্যে বন্ধুত্ব নেই

একটি সম্পর্কে যেমন সমঝোতা, শ্রদ্ধা ও সম্মান থাকা জরুরী তেমনই জরুরী একটু বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব। আপনাদের মধ্যে যদি শুধুমাত্র লাভ বার্ড এবং ফ্লার্টিং ধরণের সম্পর্ক থেকে থাকে এবং বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের অভাব হয় তাহলে ধরে নেবেন আপনাদের সম্পর্কটি আসলেই ভালোবাসার নয়। এটি আপনাদের দুজনের কামনার মাধ্যমেই তৈরি। কারণ যে সম্পর্কে ভালোবাসা রয়েছে সে সম্পর্কে একে অপরকে বোঝার জন্য বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কও থাকবে।

আপনারা শুধু শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে আগ্রহী এবং সেভাবেই কথা বলেন

যে সম্পর্ক কামনা থেকে তৈরি হয় সে সম্পর্কে শারীরিকভাবে আকর্ষণবোধ করা খুবই স্বাভাবিক একটি ব্যাপার। এই একটি মাত্র লক্ষণ থেকে সম্পর্ক এবং সম্পর্কে থাকা মানুষ সম্বন্ধে বুঝে নেয়া যায়। আপনাদের দুজনের মধ্যেই এই ধরণের চিন্তা বেশি কাজ করলে এটি সম্পূর্ণই কামনার সম্পর্ক। আর যদি এক পক্ষ থেকে এই ধরণের আগ্রহ বেশি দেখতে পান তবে বুঝে নেবেন আপনার প্রতি শুধুই তার কামনার দৃষ্টি রয়েছে।

সম্পর্ক থেকে কি পেলেন তা নিয়েই চিন্তা থাকবে সবসময়

দুজন মানুষ যখন একটি ভালোবাসার সম্পর্কে জড়ান তখন সেখানে চাওয়া পাওয়া নিয়ে কোনো ধরণের প্রশ্নের অবকাশ থাকে না। সম্পর্ক থেকে কি পাওয়া হলো, সঙ্গীর কাছ থেকে কি পেলেন তা শুধুমাত্র তখনই মুখ্য বিষয় হয়ে দাঁড়ায় যখন সম্পর্কটি কামনার দ্বারা তৈরি হয়।

সৌজন্যে : প্রিয়.কম


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...