গৌরনদী সংবাদ

চাঁদা না দেয়ায় প্রবাসীর উপর হামলা!

গৌরনদী থানা পুলিশের স্পেশাল সোর্স পরিচয়ে দাবিকৃত ২ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় সোমবার (১২ জুন) রাতে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ গোবর্দ্ধন গ্রামে হামলা চালিয়ে সৌদি প্রবাসী সৈয়দ চুন্নু’কে বেধড়ক মারপিট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এসময় হামলাকারীরা তার সঙ্গে থাকা ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে আজ মঙ্গলবার (১৩ জুন) বিকালে পুলিশের সোর্স পরিচয় দানকারী আব্দুল লতিফ বেপারীকে আটক করেছে পুলিশ।

আহত সৌদি প্রবাসী সৈয়দ চুন্নু অভিযোগ করে বলেন, আমি গত ১৭ বছর সৌদি প্রবাসে থাকার পরে গত ৩ মাস পূর্বে বাড়িতে এসে বাড়িতে পাকা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করি। গত ১০/১২ দিন আগে গৌরনদী মডেল থানার পুলিশের সোর্স হিসেবে পরিচিত স্থানীয় আব্দুল লতিফ বেপারী (৩২) আমার কাছে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

চাঁদা দিতে গড়িমিসি করায় গত ১০ জুন সন্ধায় গৌরনদী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মোঃ মাজাহারুল ইসলামসহ সাদা পোশাকধারী তিন পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে লতিফ বেপারী আমার বাড়িতে আসেন।

এসময় এসআই মাজাহারুল আমাকে মাদক মামলায় জড়ানোর ভয়ভীতি দেখিয়ে হ্যান্ডকাপ পরাতে উদ্ধ্যত হন। স্থানীয় লোকজন জড়ো হয়ে পুলিশের এহেন কাজের প্রতিবাদ জানান। একজন নিরীহ মানুষকে কেন গ্রেফতার করতে হবে জানতে চান। জনসাধারণের চাপের মুখে পুলিশ আমাকে ভয়ভীতির হুমকি দিয়ে চলে যান।

প্রবাসী সৈয়দ চুন্নু আরো জানান, রড সিমেন্টের বকেয়া পাওনা টাকা পরিশোধ করার জন্য তিনি সোমবার সন্ধা সাড়ে ৭টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে গৌরনদীর জাকির গ্রুপের দোকানের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

পথিমধ্যে দক্ষিণ গোবর্দ্ধন তুলার মিলের কাছে পৌছালে পুলিশের সোর্স লতিফ বেপারীসহ ৭-৮ জন সহযোগী তাকে কথা শোনার জন্য ডেকে পাশে নিয়ে যায়। এ সময় দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে লতিফ বেপারী ও তার সহযোগীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তার উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে আহত করে নগদ ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। তার ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী চাঁদশী ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম সরদার বলেন, আমরা গিয়ে সৈয়দ চুন্নুকে উদ্ধার না করলে তাকে সন্ত্রাসীরা মেরে ফেলত। লতিফ বেপারী দীর্ঘদিন ধরে পুলিশের সোর্স দাবি করে লোকজনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিল। দাবিকৃত চাঁদা না দেওয়ায় লতিফ বেপারী ও তার সহযোগীরা সোমবার রাতে সৌদি প্রবাসী সৈয়দ চুন্নুর উপর হামলা করেছে।

প্রবাসী সৈয়দ চুন্নুর নির্মাণাধীন পাকা ভবনের হেড মিস্ত্রী মোঃ আকবর হোসেন (৩৫) অভিযোগ করে বলেন, পুলিশের সোর্স লতিফ বেপারী আমার কাছে বিশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। চাঁদা না দিলে কাজ বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিলে নিরুপায় হয়ে আমি তাকে ৮ হাজার টাকা চাঁদা পরিশোধ করি। বাকি চাঁদার টাকা দেয়ার মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।

আহত প্রবাসীর বড় ভাবি রিমা রহমান(৩০) অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার পর গৌরনদী মডেল থানায় মামলা দিতে গেলে মামলা নেয়নি পুলিশ। এসআই মাজাহার চাঁদাবাজির ঘটনা উল্লেখ না করে মামলা দিতে বললে আমরা তাতে রাজি হয়নি।

অভিযোগ অস্বীকার করে কথিত পুলিশ সোর্স আব্দুল লতিফ বেপারী বলেন, আমি চাঁদা চাইনি এবং হামলার সঙ্গে আমি জড়িত নই। এমনকি পুলিশের সোর্স হিসেবে এলাকায় পরিচয়ও দেইনি।

অভিযোগ সর্ম্পূন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে গৌরনদী মডেল থানার এস.আই মোঃ মাজাহারুল জানান, সৌদি প্রবাসীর বাড়িতে ইয়াবা সেবনের আসর বসার মৌখিক অভিযোগ পেয়ে তিনি সৌদি প্রবাসীর বাড়িতে গিয়েছিলেন। সৌদি প্রবাসীকে কোন হুমকি দেননি। হ্যান্ডকাপ পড়াতেও চাইনি। তবে সোমবার রাতে মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন বলে মাজাহারুল জানান।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. ফিরোজ কবির বলেন, থানা পুলিশের কোন সোর্স নেই। খবর পেয়ে পুলিশের সোর্স পরিচয় দানকারী লতিফ বেপারীকে আটক করা হয়েছে।

সৌদি প্রবাসীর কাছে চাঁদা দাবি ও প্রবাসীকে মারধরের ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে ওসি ফিারোজ কবির জানান।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...