গৌরনদী সংবাদ

খাঞ্জাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগে দূর্নীতি

গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর-পাঙ্গাশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একজন সহকারী শিক্ষক ও দুজন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যাপক দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সহকারী শিক্ষক ও  চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে আগামী শুক্রবার লোক দেখানো পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ নিয়ে শিক্ষার্থী-অভিভাবক ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

খাঞ্জাপুর-পাঙ্গাশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও যুবলীগ নেতা এমদাদ হোসেন ও মোঃ বাবুল বেপারী অভিযোগ করেন, গত ৭ নভেম্বর জাতীয় ও স্থানীয় একটি পত্রিকায় একজন সহকারী শিক্ষক, একজন লাইব্রেরিয়ান ও একজন দপ্তরি নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র দাস। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর সহকারী শিক্ষক ও দপ্তরি পদে ৫টি করে এবং লাইব্রেরিয়ান পদে ৯ জন মোট ১৯ জন প্রার্থী আবেদন করেন। এর মধ্যে সহকারী শিক্ষক হিসেবে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ভায়রা ভাই লক্ষণ কান্ত সরকার রয়েছে। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে প্রধান শিক্ষক ফরিদ আহম্মদের যোগসাজশে কাউকে না জানিয়ে পকেট নিয়োগ কমিটি গঠন করে। ওই পকেট কমিটির লোকজন নিয়ে অখিল ও ফরিদ আহম্মেদ আবেদনপত্র বাছাই করে ইন্টারভিউ কার্ড প্রেরণ করেন।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও যুবলীগ নেতা এমদাদ হোসেন লিখিত অভিযোগে জানান, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক সহকারী শিক্ষক পদে লক্ষনের কাছ থেকে ৫ লক্ষ ৫০ হাজার, লাইব্রেরিয়ান ও দপ্তরি নিয়োগের জন্য প্রত্যেকের কাছ থেকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা করে ঘুষ গ্রহণ করেন। আগামী শুক্রবার ৯ ডিসেম্বর পকেট কমিটির ম্যাধ্যমে বরিশাল সদর গার্লস স্কুলে লোক দেখানো পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মহল সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এদিকে এ অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র দাস মুঠোফোনে বলেন, ‘ম্যানেজিং কমিটির কতিপয় সদস্য তাদের পছন্দের লোক নিয়োগ দিতে পারবে না বলেই এ মিথ্যা অপ-প্রচার চালাচ্ছেন।’


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply