জাতীয়

বিচারকদের বেতন বৃদ্ধির বিল উত্থাপন, জাপার ওয়াকআউট

সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতিদের বেতন-ভাতাদি বৃদ্ধির প্রস্তাব করে সংসদে সুপ্রিমকোর্ট জাজেস (রিমুনারেশন এবং প্রিভিলেজেস) (সংশোধন) বিল-২০১৬ উত্থাপন করা হয়েছে। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বিলটি উত্থাপন করেন।

এর প্রতিবাদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি (জাপা) অধিবেশন থেকে ওয়াকআউট করে। বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির সদস্যরা বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে হইচই করতে করতে সংসদ থেকে বেরিয়ে যান। যদিও পরে ৫টা ৪৩ মিনিটে আবার তারা সংসদে ফিরে আসেন। মাত্র ৩ মিনিটের জন্য ওয়াকআউট করে বিলের বিরোধিতা করে জাপা।

বিলে প্রধান বিচারপতির বেতন ৫৬ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা ৭ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১২ হাজার টাকা, ডমেস্টিক এইট ভাতা ১ হাজার ৬২৫ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৫ হাজার টাকা, কার এলাউন্স ১৫ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২৫ হাজার টাকা, অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের পূর্ব পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে সেক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিলে আপিল বিভাগের বিচারপতিগণের বেতন ৫৩ হাজার ১শ’ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১ লাখ ৫ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা ৫ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৮ হাজার টাকা, ডমেস্টিক এইট ভাতা ১ হাজার ৪৬৫ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৪ হাজার ৫শ’ টাকা, রেসিডেন্স এলাউন্স ২৬ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৫০ হাজার ৬শ’ টাকা, কার এলাউন্স ১৫ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২৫ হাজার টাকা, অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের পূর্ব পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে সেক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণের বেতন ৪৯ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৯৫ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা ৩ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৫ হাজার টাকা, ডমেস্টিক এইট ভাতা ১ হাজার ৩শ’ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৪ হাজার টাকা, রেসিডেন্স এলাউন্স ২৬ হাজার ৬শ’ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৫০ হাজার ৬শ’ টাকা, কার এলাউন্স ১৫ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২৫ হাজার টাকা, অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের পূর্ব পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে সেক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এছাড়া বিলে প্রধান বিচারপতি, আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ বছরে একবার মূল বেতনের শতকরা ২০ ভাগ অর্থ বাংলা নববর্ষ ভাতা হিসেবে প্রদানের প্রস্তাব করা হয়।

পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ৯০ দিনের মধ্যে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বিলটি আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়েছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply