গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীতে বখাটের যৌন হয়রানী, কলেজে যাওয়া বন্ধ দুই ছাত্রীর

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার শংকরপাশা ও পিঙ্গলাকাঠি গ্রামে বখাটে যুবকের উত্ত্যক্ত ও হুমকির মুখে ২ ছাত্রী কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বখাটে সাদ্দাম সরদারের বিরুদ্ধে মামলা করে বিপদে পড়েছে একটি সংখ্যালঘু পরিবার। এখন তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ।

জানা গেছে, উপজেলার শংকরপাশা গ্রামের সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের বাবুলাল দাসের কন্যা দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী তৃষ্ণা ও পিংগলাকাঠী গ্রামের দিনমজুর দুলাল সরদারের কন্যা দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী মৌসুমীকে গৌরনদী গার্লস হাইস্কুল এন্ড কলেজে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো একই গ্রামের মৃত মোসলেম সরদারের বখাটে যুবক সাদ্দাম।

এ ব্যাপারে বখাটের পরিবারের কাছে বিচার দিলে সাদ্দাম আরো ক্ষিপ্ত হয়।

জানা গেছে, সাদ্দামের হুমকির মুখে মৌসূমী প্রায় ২ মাস আগে থেকে কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

অপরদিকে সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে তৃষ্ণা কলেজ থেকে একা বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

পথিমধ্যে তৃষ্ণা পিংগলাকাঠী গ্রামের জাহাঙ্গীর সরদারের বাড়ির কাছে বাগানের সন্নিকটে পৌছলে সাদ্দাম তার পথরোধ করে। তখন বখাটে সাদ্দাম কলেজ ছাত্রীকে টানা হেচড়া করে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে বাগানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় ওই ছাত্রী ডাকচিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আসলে সাদ্দাম পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা বাবুলাল দাস বাদী হয়ে সাদ্দাম সরদারকে আসামি করে সোমবার রাতে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ঘটনার সততা স্বীকার করে গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম জানান, মামলার পর সাদ্দাম গা-ঢাকা দিয়েছে। সাদ্দামকে গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত আছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...