বরিশাল

পুলিশের কথিত সোর্সের অপকর্মে অতিষ্ঠ দু’ইউনিয়নবাসী

অপরাধী গ্রেফতারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তার পরিবর্তে নিজেরাই অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে। ফলে কথিত সোর্সের অপকর্মে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে দু’ইউনিয়ন বাসী। ঘটনাটি বরিশালের উজিরপুর থানার বরাকোঠা ও শোলক ইউনিয়নের।

গৌরনদী প্রেসক্লাবে ভুক্তভোগীদের দায়ের করা লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, কথিত ওই সোর্স কয়েক সময় নিজেকে ডিবি পুলিশ, আবার থানা পুলিশ কিংবা পুলিশের সিভিল টিমের সোর্স পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষকে নাজেহাল করে আসছে। এছাড়া ইতোমধ্যে প্রায় শতাধিক মিথ্যে মামলা দিয়ে মানুষকে হয়রানি, নারীদের সম্ভ্রবহানী ও জোরপূর্বক অন্যের জমি দখল করে ভিটেমাটি থেকে উৎখাতের বিস্তার অভিযোগ রয়েছে ওই সোর্সের বিরুদ্ধে। হয়রানীর উদ্দেশ্যে কথিত ওই সোর্সের মিথ্যে মামলা থেকে রেহাই পায়নি তার জন্মদাতা পিতা রাজেন্দ্র নাথ হালদারও।

সূত্রে আরও জানা গেছে, বরাকোঠা ইউনিয়নের বরাকোঠা গ্রামের বাসিন্দা ও পুলিশের কথিত সোর্স প্রফুল্ল কুমার হালদারের অপকর্মে বরাকোঠা ও তার পার্শ্ববর্তী শোলক ইউনিয়নের সাধারণ জনগণ অতিষ্ঠ হয়ে উঠলেও তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। অবশেষে গত ১৩ আগস্ট কথিত সোর্স প্রফুল্ল হালদারসহ তার ছয় সহযোগীর বিরুদ্ধে বরিশাল চীফ মেট্রোপলিটন আদালতে মামলা দায়ের করেছেন শোলক ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি জাঁকির হোসেন সরদার। কথিত ওই সোর্সের অপকর্ষের প্রতিবাদ করায় অতিসম্প্রতি কাংশি গ্রামের জাঁকির সরদার, নুরুল ইসলাম ও শাহজাহান চৌকিদারের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। এছাড়াও একই বাড়ির মৃত মহেন্দ্র হালদারের বিশাল সহয় সম্পত্তি অবৈধভাবে দখল করে পুরো পরিবারকে উৎখাত করে তাড়িয়ে দিয়েছে প্রফুল্ল ও তার সহযোগীরা।

শোলক ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ আঃ হালিম জানান, প্রফুল্ল ও তার সহযোগীরা নিজেদের থানা পুলিশের সোর্স পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন অপকর্মের মাধ্যমে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানার ওসি মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, প্রফুল্ল নামের আমাদের কোন সোর্স নেই। তিনি আরও বলেন, সোর্স পরিচয়দানকারীদের বিরুদ্ধে থানায় কেউ অভিযোগ দায়ের করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিজেকে নির্দোষ দাবি করে অভিযুক্ত প্রফুল্ল হালদার বলেন, একটি মহল আমার বিরুদ্ধে অপবাদ রটাচ্ছে।

// মনীষ চন্দ্র বিশ্বাস //


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো পোষ্ট...