ব্লগ

গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড থেকে বন্দরের রাস্তাটির প্রতি দৃষ্টি দিবেন কি?

মাননীয় এমপি মহোদয় এবং মাননীয় মেয়র মহোদয়,
আমরা সবাই জানি, টরকীর পরে গৌরনদী বন্দর হলো বানিজ্যিক প্রাণ কেন্দ্র। সেই বানিজ্যিক প্রাণ কেন্দ্রে যেতে হলে রাস্তাটির করুণ অবস্থা গত দুই বছর ধরে দেখে আসছে গৌরনদী পৌরসভার জনগন। গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড থেকে গৌরনদী বন্দর পর্যন্ত যেতে হলে কি পরিমাণ ঝুকি ও যাত্রী এবং চালকদের কষ্ট হয় আপনারা কি কখনো উপলব্দি করেছেন? আপনাদের কেউ কি কখনো অভিযোগ করেছে?

আমরা গৌরনদী পৌরবাসী আপনাদেরকে অনুরোধ করবো, প্লিজ আসুন, আপনাদের বিলাসবহুল গাড়ি রেখে রিকশায় বা কোন ব্যাটারি চালিত যানবাহনে চড়ে একবার রাস্তাটি ভ্রমন করুন। এরপর যদি আপনাদের মনে হয়, জনগন মিথ্যে বলছে, রাস্তাটি সম্পূর্ণরুপে ঠিক আছে এবং উহা চলাচলের জন্য যোগ্য তাহলে আমরা পৌরবাসী তথা ঐ রাস্তা দিয়ে যারাই চলাচল করবে তারা এই রাস্তা নিয়ে কখনোই অভিযোগ করবো না অভিশাপও দিবে না। দরকার হলে জনগনের থেকে চাঁদা তুলে ঐ রাস্তায় সাইনবোর্ড, ব্যানায় টাঙ্গিয়ে দিবো এই রাস্তাটি সম্পুর্ণ ভাল এবং এর জন্য আমরা জনগন দায়ী।

আমরা লোকমুখে শুনে আসছি, কেউ বলে রাস্তাটি পৌরসভার অধীনে, কেউ বলে রাস্তাটি এলজিআরডির অধীনে। তাই পৌরসভার ভিতরে রাস্তা হলেও পৌর মেয়র যেমন কোন ভ্রুক্ষেপ করছেন না তেমনি এলজিআরডি বা এই রাস্তাটি যাদের অধিনে তারাও উন্নয়নের জন্য কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

কিন্তু প্রকৃত সত্যটা জেনে রাখুন, যারাই ঐ রাস্তা দিয়ে চলাচল করে, তারা যতবার যাতায়াত করে ঠিক ততবার আপনাদেরকে অভিশাপ দেয়। এবং অভিশাপের ভাষাগুলো শুনলে আপনাদের খুব মনখারাপ হবে। জনগন কখনোই বোঝে না কোনটা এলজিআরডি আর কোনটা পৌরসভার।

জনগন উন্নয়ন দেখতে চায়। আপনাদের কাছে জনগন উন্নয়ন দেখার জন্য উম্মুখ হয়ে আছে।

গৌরনদীবাসী আপনাদের দীর্ঘায়ু কামনা করছে।


লিখেছেন : ফাহিম মুরশেদ, গৌরনদী ডটকম


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply