জাতীয়বরিশাল

মেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ বিমানের ডানা বরিশালের আকাশে

ধান, নদী, খাল এই তিনে দক্ষিনাঞ্চলীয় বিভাগীয় শহর বরিশাল। দীর্ঘদিনের আন্দোলন সংগ্রামের দাবীর মুখে বরিশালের আকাশে বেশ কয়েকবার বাংলাদেশ বিমান সহ বেসরকারী বিমান ডানা মেলেছে। পরবর্তীতে রহস্যজনক কারনে রাতের আধারে বাংলাদেশ বিমানের অফিস গুটিয়ে নেয়া সহ বেসরকারী বিমানগুলোর চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ ৮ বছর পর আগামীকাল ৮ই এপ্রিল সপ্তাহের ২দিন বাংলাদেশ বিমান পুনরায় ফ্লাইট চালু হতে যাচ্ছে। দিনের পর দিন আন্দোলন সংগ্রামের দাবী পুরন হতে যাওয়ায় বরিশালবাসীর যেমন আন ন্দিত হলেও পিছনের কথা স্মরন করে তাদের শংকাও কাটছে না। নদী খালের দেশ ও সড়ক যোগাযোগ অনুয়ন্ন জরুরী প্রয়োজনে ঢাকার সাথে যোগাযোগের জন্য বানিজ্যিক বিমান চলাচলের দাবী এ অঞ্চলের মানুষের।

১৯৬৮ সালে জমি অধিগ্রহন করা হয় বিমান বন্ধরের নামে বিমান বন্দর চালু করতে এরই মধ্যে কেটে যায় ২৭টি বছর।

১৯৯৫ সনের ১৭ জুলাই বেসরকারী এ্যারো বেঙ্গল এয়ারলাইনস এর ১৭ সিটের ২টি ওয়াই-১২ বিমান চলাচলের মধ্যে দিয়ে বরিশাল-ঢাকা আকাশ পথে বিমান চলাচল শুরু হয়। একই বছরের ৩ ডিসেম্বর থেকে বাংলাদেশ বিমান ডানা মেলে বরিশালের আকাশ পথে শুরু করে। বছর তিনেক চালু থাকার পর হঠাৎ করে বাংলাদেশ বিমানের যাত্রী সেবা বন্ধ হয়ে যায়। বরিশালবাসী বিমান চালুর দাবীতে আবার শুরু করে আন্দোলন। জনগনের আন্দোলনের মুখে ২০০৩ সালে নতুন করে চালু করে বরিশালের আকাশ পথে বাংলাদেশ বিমান। একই অবস্থায় বেশীদিন চলতে পারেনি বাংলাদেশ বিমান।

২০০৬ সাল থেকে এই পরিসেবা আবার বন্ধ হয়ে যায় বাংলাদেশ বিমানের। পাশাপাশি বেসরকারী বিমান সার্ভিস এ্যারোবেঙ্গল এয়ারলাইনস, পারাবত এয়ারলাইনস, জিএমজি এয়ারলাইনস ও সর্বশেষ ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের তাদের সার্ভিস নিজের খুশিমত চালু ও বন্ধ রাখে।

২০১৪ সালের ১১ আগষ্ট সর্বশেষ বরিশাল বিমান বন্দর থেকে বেসরকারী ইউনাইটেড এয়ারলাই নসের একটি এয়ারক্রাফট চলে যাবার পর বরিশাল বিমানবন্দরে বিমান চলাচল শুন্যের কোটায় এসে দাড়ায়।

আগামী ৮ই এপ্রিল ৩য় বারের মত রাষ্ট্রীয় বাংলাদেশ বিমান সার্ভিস চালুর মধ্যে দিয়ে দক্ষিনা ঞ্চলীয় অবহেলিত মানুষের দীর্ঘদিনের আশা নতুন করে পুরন হতে যাচ্ছে। এতে যতনা আনন্দিত হচ্ছে তার চেয়ে পিছনের ইতিহাস মনে করে সংখ্যায় তারা করছে বেশী। জনসাধারনের মাঝে কথা ওঠেছে কতদিন চলবে এ বিমান। তা নিয়ে নগরবাসীর মাঝে সন্দেহ কাজ করছে বেশী। লোকসানের অজুহাত আর কতিপয় উর্ধ্বতন কর্মকর্তার খামখেয়ালির মুখে এবার যেন বাংলাদেশ বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে না যায় এ প্রত্যাশাই করছে দক্ষিনাঞ্চবাসী।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply