ইতিহাসগৌরনদী সংবাদপ্রত্নতত্ত্ব

গৌরনদীতে আবিষ্কার হলো চারশ’ বছরের পুরানো পুঁথি

সম্প্রতি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে প্রাচীন  হাতে লেখা একটি পুঁথির সন্ধান মিলেছে। নলচিড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়
কর্তৃপক্ষ সযত্নে পুঁথিটি সংরক্ষণ করছেন। প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল আলম জানান তাঁরা বইটি দান হিসাবে পেয়েছেন উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের আশুতোষ দাসের কাছ থেকে। অবিভক্ত ভারতে রাজনৈতিক দল কংগ্রেসের স্থানীয় নেতা ছিলেন আশুতোষবাবু। পাঁচ বছর আগে তিনি পরলোকগমন করেন, তার আগে দুর্লভ পুঁথিটি স্কুলে দান করে যান।

পুঁথিটির আলোকচিত্র বাংলাদেশ জাতীয় যাদুঘরে পাঠানো হলে সেখানকার সহকারী পরিচালক প্রাচীন ভাষা বিশেষজ্ঞ ড. শরিফুল ইসলাম এর ভাষা সংস্কৃত এবং লিপি বাংলা বলে শনাক্ত করেছেন। তিনি আরো বলেন পুঁথিটি তুলোট কাগজের হওয়ার কথা এবং এটি প্রণয়ন করা হয়েছে খুব সম্ভব চোদ্দ থেকে ষোলো শতকের মধ্যে। অর্থাৎ পুঁথিটি চারশ’ থেকে ছয়শ’ বছর বয়সী।

বাংলাপিডিয়ার তথ্যমতে তুলোট কাগজ তৈরি হতো মেস্তা ও পাট থেকে। এ ধরনের হাতে তৈরি কাগজ বঙ্গদেশে প্রচলিত ছিল বারো শতক থেকে ষোলো শতক পর্যন্ত, জানান ড. শরিফুল। তবে পুঁথির বিষয়বস্তু কী সে সম্পর্কে তিনি কিছু বলেননি।

মো. নুরুল আলম জানিয়েছেন পুঁথিটি যাতে পোকায় না কাটে সেজন্য এর ভাঁজে ভাঁজে নিমপাতা দিয়ে রাখা হয়েছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply