বরিশাল

দক্ষিণের গ্রামাঞ্চলের জন্য নিয়োগ পেয়েছেন ৩১২ জন চিকিৎসক

দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে এবং চিকিৎসার মান উন্নয়নে বরিশাল বিভাগে একযোগে নিয়োগ পেয়েছেন ৩১২জন চিকিৎসক। বর্তমান সরকারের আমলে গ্রাম পর্যায়ে একসাথে ৩১২জন চিকিৎসক নিয়োগ দেয়া এ অঞ্চলের জন্য এটাই সর্বপ্রথম ও সর্বোচ্চ রেকর্ড।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে এবং চিকিৎসার মান উন্নয়নে বর্তমান সরকারের নানামুখী কার্যক্রমের প্রতিফলন হিসেবে বরিশাল বিভাগের গ্রাম অঞ্চলের জন্য ৩১২জন চিকিৎসককে একযোগে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। সূত্রে আরও জানা গেছে, সম্প্রতি দেশের অন্যান্য জেলার ন্যায় বরিশাল বিভাগের জন্যও চিকিৎসক নিয়োগ দেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তবে অন্যান্য বিভাগের থেকে বরিশাল বিভাগে চিকিৎসকের সংখ্যা বেশি। কোঠা এবং ব্যাচ ভিত্তিতে বরিশালের জন্য ৩১২জন চিকিৎসক নির্ধারণ করা হয়। এসব চিকিৎসকেরা বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে একসঙ্গে নিয়োগ গ্রহণ করেছেন। নিয়োগপত্রের নির্দেশনা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কর্মস্থলে যোগদান করবেন চিকিৎসকেরা। তবে এ নিয়োগে দক্ষিণাঞ্চলের বৃহত্তর শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল বা উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালে কোন চিকিৎসক নিয়োগ পায়নি।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, বিভাগের ৬ জেলার ৩৩৬টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র এবং উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের বিপরীতে ৩১২জন চিকিৎসককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে বরিশাল জেলায় ১৩৩ জন, ভোলায় ২৮জন, বরগুনায় ২২ জন, পটুয়াখালীতে ৪৮জন, ঝালকাঠিতে ২৮ জন এবং পিরোজপুর জেলায় ৩৭জন চিকিৎসককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ৮জন ডেন্টাল সার্জন এবং অন্যান্য পদে আরও ৮জন চিকিৎসককে নিয়োগ দেয়া হয়। কর্মস্থলে এসব চিকিৎসকেরা জুনিয়র কনসালটেন্ট (মেডিকেল অফিসার) পদমর্যাদা পাবেন।

দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে এবং ইউনিয়ন ও উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করে তুলতেই শুধুমাত্র গ্রাম অঞ্চল ভিত্তিক চিকিৎসক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। যেসব চিকিৎসকেরা নিয়োগ পেয়েছেন তাদের কমপক্ষে দুই বছর গ্রামে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। বরিশাল অঞ্চলে একযোগে ৩১২ জন চিকিৎসক নিয়োগের মাধ্যমে এ অঞ্চলের চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়নের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের চিকিৎসা সেবা শতভাগ নিশ্চিত হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...