গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীতে ধর্ষণ মামলা থেকে রেহাই পেতে ধর্ষিতাকে বিয়ে!

ধর্ষণ মামলার তিন দিন পর মামলা থেকে রেহাই পেতে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বার্থী ইউনিয়ন পরিষদে বুধবার রাতে অবশেষে ধর্ষক ধর্ষিতাকে বিয়ে করেছে। এ নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে।

পুলিশ জানায়, উপজেলার কটকস্থল গ্রামের এক দিন মজুরের কিশোরী কন্যার সাথে পার্শ্ববর্তী বয়সা গ্রামের মন্নাত বেপারীর পুত্র রহমান বেপারী (২১)’র প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৩০ নভেম্বর বিকালে বেড়ানোর কথা বলে তার অপর তিন সহযোগীদের নিয়ে ভটবাড়ি নামক স্থানে নিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর ওই এলাকার জমির মাঝখানে ইছাহাক হাওলাদারের পুকরের পশ্চিম পাড়ে নিয়ে রহমান কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এ সময় ডাকচিৎকার দিলে ধর্ষক ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় দর্ষিতা বাদী হয়ে পাঁচ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। পুলিশ মামলা দায়েরের পর আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

এলাকাবাসি জানান, ধর্ষণ মামলা থেকে রেহাই পেতে ধর্ষণের স্বজনরা ধর্ষিতার অভিভাবকদের সাথে আপোষ মিমাংশার প্রস্তাব দেন। প্রস্তাব অনুযায়ী বুধবার রাতে সাড়ে ৭টায় বার্থী ইউনিয়ন পরিষদে এক সালিস বৈঠক বসে।

সালিস বৈঠকে উপস্থিত উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শহীদুল হক প্যাদা জানান, সালিস বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী  দুই লক্ষ টাকা দেন মোহর ধার্য করে বিয়ে রেজিষ্ট্রি হয়।

বার্থী ইউনিয়ন কাজী অফিসের কাজী জালাল উদ্দিন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘কনের ১৯ বছর হওয়ায় সালিসদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমি বিয়ে রেজিণ্ট্রার সম্পন্ন করি।’


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply