কলেজ ছাত্রীকে অচেতন করে গণধর্ষণ

মাদারীপুরের কালকিনিতে চেতনানাশক খাইয়ে শনিবার (০৫ আগস্ট) বিকেলে বরিশালের গৌরনদী সরকারি কলেজের এইচএসসির প্রথম বর্ষের ছাত্রীকে গণধর্ষণ করেছে বখাটেরা।

কালকিনি উপজেলার কাজীবাকাই ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। মূল ধর্ষকের বাবা-মাকে আটক করেছে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী সরকারি কলেজের এইচএসসির প্রথম বর্ষের ছাত্রীর সঙ্গে খাঞ্জাপুর গ্রামের রাজ্জাক আকনের ছেলে রিফাত আকনের দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শনিবার বিকেলে রিফাত তাকে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে কালকিনি উপজেলার কাজীবাকাই ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামের একটি নির্জন বাগানে নিয়ে যায়। তাকে কৌশলে চেতনানাশক খাইয়ে অজ্ঞান করে রিফাত আকনসহ চার বন্ধু মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এসময় ওই ছাত্রী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে ধর্ষক রিফাত আকন ওই ছাত্রীকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে ধর্ষক রিফাত আকনের বাবা রাজ্জাক আকন ও তার মা রেহেনা বেগম ঘটনা জানতে পেরে হাসপাতালে আসলে কালকিনি থানা পুলিশ তাদের আটক করে।

রিফাতের বাবা রাজ্জাক আকন বলেন, আমার ছেলে হয়তো বন্ধু-বান্ধবের প্ররোচনায় এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

শেয়ারঃ