লাইফ ও সাইন্স

সে কি সত্যিই আপনার যোগ্য জীবনসঙ্গী?

ইদানিং কালে ঠুনকো ভালোবাসা এবং অবিশ্বাসের বেড়াজালে জড়ানো পৃথিবীর মাঝে একজন সত্যিকারের জীবনসঙ্গী ও ভালোবাসার মানুষ খুঁজে পাওয়া অনেক বেশি কষ্টকর। যেভাবে উপযুক্ত কারণ না থাকা সত্ত্বেও হুট করে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার প্রবণতাও বেড়েছে, তাতে করে একজনের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে শুধুমাত্র বিশ্বাসের ওপরে ভরসা করে থাকা আসলেই কঠিন।

কিন্তু এভাবে চিন্তা করতে গেলে পৃথিবীর সকলকেই অবিশ্বাসের নজরে দেখতে হয়। তখন সত্যিকারের ভালোবাসার মানুষটির প্রতি অযথা সন্দেহ করাটাও অস্বাভাবিক হবে না। কিন্তু যার সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে আছেন শুধুমাত্র অন্ধ বিশ্বাস করেও তো থাকা যায় না। আর কিছু নয় নিজেকেই প্রশ্ন করে দেখুন না যাকে মন প্রান দিয়ে ভালবাসছেন তিনি আদৌ আপনার যোগ্য জীবনসঙ্গী কিনা। বুঝে যাবেন নিজের অজান্তেই।

সে কেন আমাকে ভালোবাসে?

সবার প্রথমে নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন তো সে কেন আপনাকে ভালোবাসেন? আপনার কোন জিনিসটি তার কাছে খুব বেশি প্রিয়। সেটাকি আপনার বাহ্যিক কোনো সৌন্দর্য নাকি আপনার ভেতরের কিছু? যদি বাহ্যিক সৌন্দর্যের ওপর ভিত্তি করে তিনি আপনাকে ভালোবাসেন তবে আপনার সঙ্গী হওয়ার যোগ্যতা তার নেই।

সে কি আমার সম্পর্কে জানে?

একজন মানুষ সম্পর্কে সব কিছু জানা কারো পক্ষেই সম্ভব নয়। কিন্তু কিছু ব্যাপার থাকে না বলে না দিলেও শুধুমাত্র জীবনসঙ্গীরাই নিজে থেকে জেনে বা বুঝে নিতে পারেন। তিনি কি আপনার সেসকল ব্যাপার সম্পর্কে জানেন কিনা ভেবে দেখুন।

তার ভালোবাসা কি আমার দোষগুণ সব কিছুর ঊর্ধ্বে?

দোষগুনে মিলিয়েই একজন মানুষ। যদি সত্যিকারের ভালোবাসা হয়ে থাকে তবে দোষগুণ সবকিছুর ঊর্ধ্বেই থাকবে তার ভালোবাসা।

আমাদের মনমানসিকতায় মিল কতোখানি?

সম্পূর্ণ মিলিয়ে কখনোই জীবনসঙ্গী খুঁজে পাবেন না। কিন্তু দুজন মানুষ একসাথে অনেকটা পথ পার করতে পারেন যদি তাদের মনমানসিকতায় অনেকখানি মিল থাকে। তাই নিজেকে প্রশ্ন করে নিন এই ব্যাপারে।

জীবনের প্রতিক্ষেত্রে তার সাপোর্ট কি আমি পাবো?

তার এখনকার আচরণের সাথে মিলিয়ে চিন্তা করে দেখুন তো তিনি কি সকল ধরণের বিপদে আপদে এবং আপনার প্রতি অন্যায়ের সময় আপনার পাশে দাঁড়াতে পারবেন? নাকি কিছুটা হলেও আপনার নিজেকে একলা মনে হবে। যদি মনে করেন তিনি পারবেন তবে সত্যিকার অর্থেই তিনি আপনার যোগ্য জীবনসঙ্গী।

সে কি আদৌ আমাকে সুখে রাখতে পারবে?

আপনি আপনার সম্পর্কে কতোটা সুখী একবার ভেবে দেখুন তো? সম্পর্ক ঠিক রাখতে এবং সুখ ধরে রাখতে এখন থেকেই কি আপনাকে অনেক বেশি কম্প্রোমাইজ করতে হচ্ছে কিনা চিন্তা করুন। যদি তাই হয় তবে তিনি আপনার যোগ্য নন। কারণ বিয়ের পর পুরোপুরি আপনাকেই কম্প্রোমাইজ করে চলতে হবে।

তার কাছে আমার মূল্য কতোটুকু?

আপনার কথা তার কাছে কতোটা গুরুত্ব পায় এবং আপনার বেদনায় তিনি কতোটা ব্যথিত হন তার ওপর জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নির্ভর করে। আপনি নিজেই ভেবে নিন আসলেই তার কাছে আপনার অবস্থান কোথায়।

আমি কি তাকে পুরোপুরি বিশ্বাস করতে পারি?

আপনি কি তাকে কোনো কারণে সন্দেহের দৃষ্টিতে দেখেছেন কিনা একবার ভেবে দেখুন তো। নাকি সম্পর্কের শুরু থেকেই তিনি আপনার মনে সন্দেহের সৃষ্টি করে এমন কিছুই করেননি তাও মনে করে দেখুন। কারণ বিন্দুমাত্র সন্দেহ থাকলে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা মুশকিল।

দ্য ইন্ডিয়া টাইমসে প্রকাশিত আর্টিকেল Find out if he/she is the one for you হতে অনুপ্রাণিত

প্রিয়.কম এর সৌজন্যে


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply